বাংলাদেশে আসছে গুগল অফিস

Posted on

কিছুক্ষণ আগে আমাকে একজন ফোন দিয়ে বলল যে ভাই শুনছি বাংলাদেশ নাকি গুগলের অফিস হবে  গিয়েছে বাংলাদেশ অফিস হইলে কি আমি তাদের কাছে গিয়ে কোনভাবে আমার ইউটিউব চ্যানেল ফেরত আনতে পারব কিনা গুগোল এবং অ্যামাজন সহ আরো কিছু কোম্পানি বাংলাদেশ বিজনেস আইডিয়া ফিকেশন নাম্বার রেজিস্ট্রেশন করেছে এবং ধারণা করা হচ্ছে।

বাংলাদেশে আসছে গুগল অফিস

যে তারা বাংলাদেশে কোন না কোনভাবে অফিস এস্টাবলিশ করবে যেটা নিউজে বলা হয়েছে এটা নিয়েই এত হাইপ এবং সবাই অনেক এক্সাইটেড এক্সাইটেড এখানে কিছু কনসেপ্ট ইউজ কিছু ভুল ইনফরমেশন মানুষের কাছে পৌঁছাচ্ছে অলরেডি যারা অনলাইনে আমি বেশ কিছু রং ইনফর্মেশন ছড়াতে দেখেছি পাশাপাশি এরকম উদ্ভট উদ্ভট কিছু প্রশ্ন এসেছে কাজেই ভাই ফোন দিয়েছেন তার সাথে আমি পরে কথা বলে বুঝিয়েছে তাকে বিষয়টা কি হয়েছে তার ভিডিও।

yhdtjhdy

এটা হয়েছে যে বাংলাদেশ কিন্তু গুগোল ইন্দিরেক্টলি বিজনেস ঠিকই করছেন এক আমরা বাংলাদেশ থেকে গুগলের বিভিন্ন সার্ভিস ইউজ করছি কেউ সুইসাইড করে কেউ গুগোল আইডি বুস্ট করে কেউ গুগলের অন্যান্য প্রিমিয়াম সার্ভিস গুলো কিনে টাকা দিয়ে আমরা কিনছি টাকার বিজনেস গুগল বাংলাদেশের কোটি টাকার উপরে কিন্তু গুগোল কোন টেক্স বাংলাদেশ সরকারকে এতদিন পর্যন্ত দিচ্ছিল না কিছুদিন আগে ইউটিউবে হচ্ছে ইউএস থেকে আমরা যে ইনকাম করব সেটার উপরে।

গুগোল ইন্দিরেক্টলি বিজনেস

আমরা যারা কন্টাক্ট লিস্টে আছে তারা কিন্তু ইউএসএতে টেক্স পায় করবো পাঁচ করে কিন্তু আমরা কানবো গুগোল যখন বাংলাদেশের বিজনেস করছে তারা যে টাকাটা নিয়ে যাচ্ছে এটার উপরে কিন্তু তারা কোন ট্যাক্স দিচ্ছে না।

বাংলাদেশ সরকারকে সিমিলারলি অ্যামাজন বলেন কিন্তু অন্য যে কোম্পানি গুলো আছে কিন্তু বাংলাদেশ টেক্স বাংলাদেশ সরকারি কোম্পানিগুলোকে প্রেশার ক্রিয়েট করেছে যে আপনারা যারা আমাদের দেশ থেকে বিজনেস করে টাকা নিয়ে যাচ্ছেন আমাদেরকে ট্যাক্স দিয়ে যেতে হবে এটা সব দেশেরি নিয়ম সোয়েটার লিগালি ও তারা দিতে বাধ্য এটা বলার পরে।

এবং অ্যামাজন এই দুইটা কোম্পানি হচ্ছে বাংলাদেশ বি আই এন বা বিজনেসের ইন্ডিকেশন নাম্বার রেজিস্ট্রেশন করেছে আর আমরা যারা ইন্ডিভিজুয়াল করি তারা হচ্ছে তিন নাম্বার রেজিস্ট্রেশন করে যেরকম ট্যাক্স আইডেন্টিফিকেশন নাম্বার এর কম্প্রেসার ইনফেকশন নাম্বার এখন থেকে তারা বাংলাদেশকে হচ্ছে ফিফটি পার্সেন্ট ট্যাক্স দেবে।

এসি কোম্পানির বাংলাদেশের

এনবিআরে এবং বছর শেষে যে ফাইনাল একটা স্টেটমেন্ট দেওয়া লাগে সেটাও তারা বাংলাদেশের বিজনেস এর উপরে তারা অচিরেই স্টেটমেন্ট এইটা হচ্ছে মূল ঘটনায় এখন এখানে যে ভুল ধারণা গুলো তৈরি হচ্ছে সেটা হচ্ছে যে গুগলের বাংলাদেশ অফিস হবে অ্যামাজনের বাংলাদেশ অফিস হবে হ্যাঁ এটা তূর্য অফিস হওয়ার একটা চান্স আছে বাট সেটা দিরেক্টলি কোন গুগলের অফিস হবে।

কিংবা অ্যামাজনের কোন সেন্ট্রাল অফিস হবে ব্যাপারটা সেরকম না প্রথমে পসিবিলিটি এরকম যে তারা কোন লিয়াজোঁ অফিস করতে পারে কিংবা তারা হয়তো বাংলাদেশে কোন এজেন্সির করতে পারে কিংবা তাদের কোন একটা রিপ্রেজেন্টেটিভ বাংলাদেশে থাকতে পারে শুধুমাত্র এই জিনিসগুলো দেখাশোনা করার জন্য কাস্টমার সাপোর্ট কিংবা ওই টাইপের সেন্ট্রাল কোন অফিস রিজিওনাল অফিস প্রবাবলি এখনই হবে না ফিউচার।

পারে বাট সেটা আমরা এই নিউজটা পড়ার পরে যতটা এক্সাইটেড হয়ে গেছি ততটা হয়তোবা হবে না এটা আমার ধারণা এন্ড বেশিরভাগ বিশ্লেষকেরা মনে করছে আর অ্যামাজন নিয়ে যে ভুল ধারণাটা তৈরি হচ্ছে সেটাই ভাবতেছে amazon.com বাংলাদেশে ই-কমার্স স্টার্ট করবে যে কারণে তারা বিজনেস রেজিস্ট্রেশন করেছে বাট আপনার যদি নিউজ টা একটু ক্লিয়ারলি।

রেজিস্ট্রেশন

পড়েন তাহলে ওখানে লিখা আছে যে অ্যামাজন ওয়েব সার্ভিস নামে যে কোম্পানিতে আছে তারা হচ্ছে বাংলাদেশের বিন রেজিস্ট্রেশন করেছে অ্যামাজনের কিন্তু অনেকগুলো সার্ভিস আছে তাদের অনেকগুলো বিজনেস আছে তার মধ্যে একটা হচ্ছে এই ws112 এড্রেস এর নাম শুনেছেন অ্যামাজন ওয়েব সার্ভিস এসি কোম্পানির বাংলাদেশের রেজিস্ট্রেশন করেছে amazon.com যেটা যেটা হচ্ছে।

কমার্সের কিন্তু বাংলাদেশ দিরেক্ট কোন সার্ভিস নেই বা কোনো কার্যক্রম তাদের নেই অ্যামাজন থেকে আপনি কোন কিছু অর্ডার করতে পারবে না বাংলাদেশ থেকে তাদের শিপিং নাই আপনি অবশ্যই amazon.com এর কথাটা যারা বলছে তারা আসলে ভুল বলছে আমাজন ডট কম না অ্যামাজন ওয়েব সার্ভিস এসোসিয়েশন করেছে।

ilhkltitu

তো হ্যাঁ এটা দিয়ে একটা অপ্রচলিত বসে ক্রিয়েট হয়েছে যেহেতু অ্যামাজন বাংলাদেশকে একটা কান্ট্রি হিসেবে এখন রিকগনাইজ করছে তাদের বিজনেস প্ল্যাটফর্মের জন্য শুধুমাত্র zwx থানা অ্যামাজন অ্যামাজন প্রাইম আছে বা অন্যান্য যে সার্ভিস গুলো আছে সেগুলো বাংলাদেশ থেকে ডিরেক্টলি এখন এনজয় করা যায় নেওয়া যায়।

অ্যামাজন বাংলাদেশ

সেই সার্ভিসগুলোর জন্য এখন অ্যামাজন বাংলাদেশের টেক্স দেবে আমি যেটা বলছিলাম যে একটা রিলেশন হয়তো ভালো হচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেট ম্যাচ করছে অ্যামাজন ওয়ান ফ্রিজ যেখানে তারা বিজনেস করে তুমি পসিবিলিটি আছে ফিউচারে হয়তবা তারা ই-কমার্স এর কথা চিন্তা করতেও পারে বাচ্চাটার পসিবিলিটি আমার কাছে ব্যক্তিগতভাবে অনেক কম মনে হয়।

কারণ অলরেডি বাংলাদেশের মার্কেট ছোট এই জায়গাতে অনেক বিগ বিগ প্লেয়ার ঢুকে গিয়েছে মার্কেট অনেক ডিপ্রেশনে চলে আসছে এমন কিছুই কমার্স প্লাটফর্মে আসছে জ্বালাপোড়া ই-কমার্সকে রেগুলেশনস করে ফেলেছে এরকম একটা সিচুয়েশনে অ্যামাজন আদৌ আসবে কিনা এটা নিয়ে আমার সন্দেহ আছে সেটি হলো ব্যস কারণে আমাজন আসলে অবশ্যই একটা কোয়ালিটি কোয়ালিটি আমরা দেখতে পারবো ই-কমার্সে আর তাদের হয়তো সরকার ও তাদের প্রতি অনেক বাধা।

ঠিক বলবে না নানান ধরনের নিয়ম কারণ তাদের উপর আরোপ করবে যে তারা বিদেশে একটা কোম্পানির এসব নানান সমস্যার কারণে amazon.com ই কমার্স নিয়ে সরাসরি বাংলাদেশে আসবে এই সম্ভাবনা খুবই কম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *